লাশসহ মাকে গভীর রাতে নামিয়ে দিয়ে চলে গেল ড্রাইভার


জয়পুরহাট প্রতিনিধি
ঢাকা থেকে নওগাঁগামী ছেড়ে আসা যাত্রীবাহী একটি বাসে বাড়ি ফেরার পথে মিজানুর রহমান নামের এক ব্যক্তি মারা যান। সঙ্গে ছিলেন তাঁর বৃদ্ধ মা। করোনা সন্দেহে গভীর রাতে সেই বৃদ্ধ মাকে লাশসহ নামিয়ে দিয়ে বাসটি ছেড়ে যায়। ছেলের লাশ নিয়ে মা বসেছিলেন দীর্ঘক্ষণ। স্থানীয় ব্যক্তিদের সহযোগিতা চেয়েও পাননি।
আজ মঙ্গলবার ভোরে জয়পুরহাট সদর উপজেলার হিচমি এলাকায় জয়পুরহাট-বগুড়া সড়কে এ ঘটনা ঘটেছে।
নিহত মিজানুর রহমান নওগাঁর ধামুইরহাট উপজেলার জাহানপুর গ্রামের বাসিন্দা।
মিজানুর রহমানের মায়ের বরাত দিয়ে জয়পুরহাট সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মিল্টন চন্দ্র রায় বলেন, মিজানুর রহমান হৃদ্‌রোগে‌ আক্রান্ত ছিলেন। তাঁর মেয়ে ঢাকায় গৃহপরিচারিকার কাজ করেন। দুই দিন আগে মিজানুর তাঁর বৃদ্ধ মাকে সঙ্গে নিয়ে মেয়েকে দেখতে ঢাকায় গিয়েছিলেন। গতকাল সোমবার রাতে তাঁরা আহাদ পরিবহন নামে একটি যাত্রীবাহী বাসে করে বাড়ির উদ্দেশে রওনা হন। পথে মিজানুর হঠাৎ শ্বাসকষ্টে মারা যান। রাত তখন তিনটা। এরপর বাসটি ওই মা–ছেলেকে জয়পুরহাট-বগুড়া আঞ্চলিক মহাসড়কের হিচমি এলাকায় নামিয়ে দিয়ে গন্তেব্যর উদ্দেশে ছেড়ে যায়। বৃদ্ধ মা দীর্ঘক্ষণ তাঁর ছেলের লাশের পাশে বসে ছিলেন। তিনি স্থানীয়দের সহযোগিতা চেয়েও পাননি। পরে সকালে জেলা স্বাস্থ্য বিভাগ ও স্থানীয় প্রশাসনের লোজজন এসে নমুনা সংগ্রহ করে লাশটি বাড়িতে পাঠান।


LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here