যে কারনে শিশুসন্তানকে পুকুরে ফেলে হত্যা করলেন মা

কি কারনে এক বছরের শিশুসন্তানকে পুকুরে ফেলে হত্যা করলেন মা?
  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    24
    Shares

অল ক্রাইমস টিভি ডেস্ক

রাজবাড়ী সদর উপজেলার বানিবহ ইউনিয়নে সুরাইয়া আক্তার নামে এক বছরের এক শিশুকে পুকুরের পানিতে ফেলে হত্যা করেছেন মা হনুফা বেগম ওরফে সুমি। ঘটনার পর থেকে শিশুটির মা সুমি পলাতক রয়েছেন।

মঙ্গলবার (০৭ জুলাই) দুপুরে উপজেলার বানিবহ ইউনিয়নের বার্থা বিলপাড় এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শিশু সুরাইয়া আক্তার বার্থা এলাকার আলমগীর হোসেনের মেয়ে।

আলমগীর হোসেনের প্রতিবেশী নমিতা হালদার বলেন, গরুর খাবারের জন্য দুপুরে স্থানীয় একটি পুকুর পাড়ে খড় আনতে যাই। তখন দেখি সুরাইয়াকে কোলে করে মা সুমি পুকুর পাড়ে বসে আছে। এই দৃশ্য দেখে খড় নিয়ে চলে আসি। কিছুক্ষণ পর দেখি সুমি একা দৌড়ে চলে পালিয়ে যাচ্ছে। এরপর শিশুটির নানি পুকুর থেকে সুরাইয়াকে উদ্ধার করে নিয়ে আসেন। পরে শিশুটিকে সদর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

শিশুর নানি রওশন আরা বলেন, সুমি দুপুরে তার মেয়ে সুরাইয়াকে নিয়ে শুয়ে ছিল। আমরা সবাই তখন কাজ করছিলাম। হঠাৎ পুকুরে নাতনি ভাসছে শুনে দৌড়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। হাসপাতাল থেকে বাড়িতে এসে দেখি সুমি নেই।

স্থানীয়রা জানায়, দুই বছর আগে বানিবহ ইউনিয়নের বার্থা গ্রামের মো. হাবিবুর রহমানের মেয়ের সঙ্গে বিয়ে হয় রাজবাড়ী কোর্টের মামলা লেখক আলমগীর হোসেনের। একটি মাত্র সন্তান তাদের সুরাইয়া। ছয় মাস আগে সুমি তার বাবার বাড়ি চলে আসেন। এরপর থেকে স্বামীর বাড়িতে যাননি তিনি।

রাজবাড়ী থানা পুলিশের ওসি স্বপন মজুমদার বলেন, খবর পেয়ে ওই শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজবাড়ী সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ঘটনার পর থেকে শিশুটির মাকে খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না। শিশুটির মৃত্যুর বিষয়টি তদন্ত করা হচ্ছে।


  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    24
    Shares
  •  
    24
    Shares
  • 24
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply