ফেসবুক লাইভে আসছেন দুর্নীতির বিরুদ্বে জিহাদ ঘোষণাকারী সাটুরিয়া ইউএনও আশরাফুল আলম

ফেসবুক লাইভে আসছেন দুর্নীতির বিরুদ্বে জিহাদ ঘোষণাকারী সাটুরিয়া ইউএনও আশরাফুল আলম
  • 873
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    873
    Shares

বিশেষ প্রতিবেদক, অল ক্রাইমস টিভি
মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) আশরাফুল আলম আজ শনিবার রাত ৮ টায় ফেসবুকে লাইভে সরাসরি জনগনের সাথে করোনা ইস্যুতে কথা বলবেন।
মানিকগঞ্জ জেলার প্রায় ৭০ হাজার সদস্য নিয়ে গঠিত “মানিকগঞ্জ-১৮০০” নামের জনপ্রিয় ফেসবুক গ্রুপে তিনি প্রশাসনিক লাইভে আসবেন বলে জানিয়েছেন শামীম এ সুমন নামের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক এক ছাত্র ।
মানিকগঞ্জ-১৮০০ গ্রুপের এডমিন মোঃ রতন মিয়া অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করবেন বলে জানা গেছে।

মানিকগঞ্জ জেলার সাটুরিয়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার(ইউএনও) আশরাফুল আলম আজ শনিবার রাত ৮ টায় ফেসবুকে লাইভে সরাসরি জনগনের সাথে করোনা ইস্যুতে কথা বলবেন।
মানিকগঞ্জ জেলার প্রায় ৭০ হাজার সদস্য নিয়ে গঠিত “মানিকগঞ্জ-১৮০০” নামের জনপ্রিয় ফেসবুক গ্রুপে তিনি প্রশাসনিক লাইভে আসবেন।
মানিকগঞ্জ-১৮০০ গ্রুপের এডমিন মোঃ রতন মিয়া অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করবেন বলে জানা গেছে।

সাটুরিয়ার ইউএনও কথা বলবেন চলমান করোনা পরিস্থিতে সরকারি নির্দেশনা কঠোরভাবে বাস্তবায়ন করতে গিয়ে তাঁর অর্জিত নানা অভিজ্ঞতা,এলাকাবাসীর সহযোগিতা ও অসহযোগিতা নিয়ে।
করোনাকালীন মানবিকতার সংকট ও প্রশাসনের দায়িত্ববোধ ইত্যাদি বিষয়েও তিনি আলোচনা করবেন।
সাটুরিয়াবাসী কমেন্টের মাধ্যমে মতামত দিয়ে লাইভ সেশনে অংশ নিতে পারবেন এবং করোনা বিষয়ে নানা প্রশ্নও করতে পারবেন।
এতে স্থানীয়রা প্রশাসনের নানা উদ্যোগ ও নির্দেশনা সম্পর্কে যেমন ধারণা পাবেন, তেমনি প্রশাসনকে সহযোগিতার মাধ্যমে করোনা পরিস্থিতি মোকাবিলা ও সাটুরিয়ার উন্নয়ন কর্মকান্ডে সক্রিয় অংশীদার হতে পারবেন মনে করছে স্থানীয় সচেতন নাগরিকরা।
উপজেলা প্রশাসন তাদের অফিসিয়াল ফেইসবুক একাউন্ট এবং পেইজে করোনার এই ভয়াল সময়ে সাটুরিয়া উপজেলা প্রশাসনের কর্মতৎপরতার প্রতিনিয়ত আপডেট দিয়ে যাচ্ছেন।
এলাকাবাসীদের কমেন্ট বক্সে ভূয়সী প্রশাংসা ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে দেখা যাচ্ছে।
দরিদ্র-অসহায় মানুষের দুয়ারে দুয়ারে ত্রান পৌছে দিচ্ছেন ইউএনও নিজে হাতেই। রাতেও গণসচেতনতা সৃষ্টিতে চায়ের দোকানে হাজির হোন তিনি।
ফোনে খবর পেয়ে গভীর রাতে প্রত্যন্ত কোন গ্রামে নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে আয়োজিত আনন্দ অনুষ্ঠান ভন্ডুল ছিল প্রশাসনের প্রতিদিনের রুটিন। দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণে রাখার চোখে পড়ার মতো অবিরত চেস্টাও ছিল দুর্নীতির বিরুদ্বে জিহাদ ঘোষণাকারী সাটুরিয়ার ইউএনও এবং তাঁর টিমের। লকডাউন চলাকালীন গ্রামের মানুষ ঘরে বসে সরকারি দামে নিত্যপ্রয়োজনীয় বাজার পেয়েছেন। গণজমায়েত বন্ধে সাটুরিয়া উপজেলা প্রশাসনের নানা উদ্ভাবনী কৌশল সারাদেশে প্রশংসিত হয়েছে, অনুসরণীয় হয়েছে।
চালু ছিল ২৪ ঘন্টার হটলাইন। মানুষের নানা প্রয়োজনে সাড়া দিয়েছে কুইক রেসপন্স টিম । করোনার সেই কঠিন সময়ে প্রশাসনের স্লোগান ছিল “আপনারা কষ্ট করে ঘরে থাকুন, আমরা আপনার জন্য বাইরে আছি”।


  • 873
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
    873
    Shares
  •  
    873
    Shares
  • 873
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

Leave a Reply