প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে শান্তিভবনে বৃক্ষরোপণ শুরু

সিআইডি পুলিশের ডিআইজি  শেখ নাজমুল আলম এবং র‌্যাব-৪ অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ মোজাম্মেল হক  বীরশ্রেষ্ঠদের নামে নামকরণ করা শান্তিভবনের নবনির্মিত কক্ষগুলো উদ্বোধন করবেন শীঘ্রই

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে শান্তিভবনে বৃক্ষরোপণ শুরু ( ছবিঃ আশিকুর রহমান ফারিয়ান)

আবু বক্কর সিদ্দিকী জসিম, সাটুরিয়া থেকে

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে অনুপ্রাণিত হয়ে আজ শুক্রবার থেকে মানিকগঞ্জের সাটুরিয়া উপজেলার ‘বাছট বৈলতলা মোকদমপাড়া হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানা’র নির্মাণাধীন শান্তিভবনে বৃক্ষরোপণ অভিযান শুরু হয়েছে।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম জয়ন্তী উপলক্ষে কৃঞ্চচূড়া,রঙ্গন,গন্ধরাজ,হাসনাহেনা,বেলিসহ দেশি-বিদেশি বিভিন্ন প্রজাতির ফুল গাছের চারা রোপণ করা হয়েছে।

সবুজ পরিবেশ আন্দোলন মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক রাজ,সাটুরিয়া প্রেস ক্লাবের সাবেক সভাপতি অলক রায়, সবুজ পরিবেশ আন্দোলন মানিকগঞ্জ জেলা শাখার সহ-সভাপতি মফিজুল ইসলাম  পিন্টু, বাছট বৈলতলা মোকদমপাড়া হাফিজিয়া মাদরাসা ও এতিমখানার মোহতামীম হাফেজ ক্বারী আব্দুর রহমান, যুগ্ন-সম্পাদক মোঃআমিনুল ইসলাম, চট্রগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্রলীগ নেতা হাসিবুল হাসান সোহেল, সমাজ সেবক মোঃ শফিকুল ইসলাম শফি, ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ নেতা ফরিদ হোসাইন, স্থানীয় ছাত্রলীগ নেতা দেলোয়ার হোসেন, রাব্বি হোসেন,জাহিদুল ইসলাম,জুলহাস উদ্দিন, রিফাত জামান,আশিকুর রহমান ফারিয়ান, আশরাফুল ইসলামসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশে শান্তিভবনে বৃক্ষরোপণ শুরু ( ছবিঃ আশিকুর রহমান ফারিয়ান)

২০১৮ সালের ৩০ শে মার্চ ৪ তলা শান্তি ভবনের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করেছিলেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ক্রাইম) তৎকালীন যুগ্ম কমিশনার শেখ নাজুমল আলম,বিপিএম(বার),পিপিএম(বার)। ২০১৯ সালে ২৮ শে জুন শান্তি ভবনের ৩টি কক্ষের শুভ উদ্বোধনও করেন তিনি।

‘জঙ্গিবাদ জিহাদ নয়, মানুষ হত্যা পূণ্য নয়’- এই শ্লোগানকে ধারন করে এই হাফেজিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানার  দোতলার তিনটি নবনির্মিত কক্ষের একটির নামকরণ করা হয় গুলশানে জঙ্গী হামলায় নিহত ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের এসি শহীদ রবিউল করিমের নামে। আরও দুটি কক্ষের নামকরণ করা হয় সিলেটের আতিয়া মহলে জঙ্গী বিরোধী অভিযান কালে বোমা হামলায় নিহত র‍্যাবের সাবেক গোয়েন্দা প্রধান শহীদ লে: কর্ণেল মোহাম্মদ আবুল কালাম আজাদ ও ভাষা শহীদ রফিকের নামে।

বাকী কক্ষগুলোর নির্মাণ কাজ শেষ হলে স্বাধীনতা যুদ্বের সাত মহান বীরশ্রেষ্ঠদের নামে নামকরণ হবে বলে তখনই পরিচালনা কমিটির সাধারন সম্পাদক হাবিবুল্লাহ মিজান জানিয়েছিলেন।

তারই ধারাবাহিকতায় শান্তিভবনের নীচতলার নব-নির্মিত আরো তিনটি কক্ষের নামকরণ করা হয়েছে বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ফ্লাইট লেফটেন্যান্ট মতিউর রহমান কক্ষ, বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ ল্যান্স নায়েক নুর মুহাম্মদ শেখ কক্ষ এবং বীরশ্রেষ্ঠ শহীদ স্কোয়াড্রন ইঞ্জিনিয়ার রুহুল আমিন কক্ষ।

তিনটি কক্ষের সম্পূর্ণ নির্মাণ শেষ করা হলেও মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা যাচ্ছে না। মহামারী শেষ হলেই সিআইডি পুলিশের ডিআইজি শেখ নাজমুল আলম এবং র‌্যাব-৪ অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মোঃ মোজাম্মেল হক বিপিএম  (বার)  তিন বীরশ্রেষ্ঠদের নামে নামকরণ করা কক্ষগুলো উদ্বোধন করবেন বলে আশা করা যাচ্ছে।

মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির কোষাধক্ষ এবং সাটুরিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক তোফাজ্জ্বল হোসেন মেম্বার  শান্তিভবনের নির্মাণ কাজে পাশে থাকার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন।

এছাড়া একই দিনে তিনতলার নির্মাণ কাজেরও উদ্বোধন হবে বলে জানিয়েছে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা একে এম ফজলুল হক মাস্টারের বড় ছেলে ও পরিচালনা কমিটির সহ-সভাপতি  এবং সাটুরিয়া ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের যুগ্ন-সম্পাদক শামসুর রহমান পিন্টু।

মুজিববর্ষে প্রতিটি নেতাকর্মীকে আগামী ৩ মাসের (আষাঢ়, শ্রাবণ ও ভাদ্র) মধ্যে কমপক্ষে ৩টি (বনজ, ফলদ ও ভেষজ) বৃক্ষ রোপণের আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মুজিবর্ষের আহ্বান, ৩টি করে গাছ লাগান’ স্লোগানকে সামনে রেখে গত সোমবার ( ১৫ই জুন) মুজিববর্ষে প্রতিটি নেতাকর্মীকে আগামী ৩ মাসের মধ্যে কমপক্ষে ৩টি বৃক্ষ রোপণের এই  আহ্বান জানান তিনি।

প্রধানমন্ত্রী  আরো বলেছিলেন, ” শুধু গাছ লাগালেই হবে না। পরিচর্যা করতে হবে। গাছকে লালন-পালন করতে হবে। নিজের সন্তানকে যেভাবে যত্ন করি, সেভাবে গাছকেও যত্ন করতে হবে।

সেই আহবানে সারা দিয়েই আজ শান্তিভবনে বৃক্ষরোপণ অভিযান শুরু হলো।


Leave a Reply