Home / জেলার অপরাধ / রংপুর বিভাগ / রংপুর বিভাগে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

রংপুর বিভাগে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট

অল ক্রাইমস টিভিঃ রংপুরের জেলা মোটর মালিক সমিতির বিরুদ্ধে হামলা ও যানবাহন ভাংচুরের অভিযোগ তুলে হামলাকারীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে সোমবার থেকে রংপুর বিভাগে অনির্দিষ্টকালের জন্য পরিবহন ধর্মঘট আহ্বান করেছে মোটর শ্রমিক ইউনিয়ন।

রংপুর জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ বলেন, “সোমবার ভোর ৬টা থেকে হামলাকারীদের গ্রেপ্তার ও পুড়িয়ে দেওয়া যানবাহনের ক্ষতিপূরণ না পাওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট চলবে।”
তার অভিযোগ রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির চেইন মাস্টার জেলা মোটর শ্রমিক ইউনিয়নের সড়ক সম্পাদক আব্দুল মোত্তালেব ও সাদেকুল ইসলামকে মারধর করার পর বিষয়টি মালিক সমিতির কর্মকর্তাদের জানালেও তারা ব্যবস্থা নেয়নি।

মজিদ বলেন, “এনিয়ে রোববার রাত ৭টায় আমরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালসংলগ্ন শ্রমিক ইউনিয়নের কার্যালয়ে সভা করছিলাম। রাত সাড়ে ৮টায় মালিক সমিতির চেইন মাস্টাররা অতর্কিতে আমাদের ওপর হামলা চালিয়ে মারধর করে। পরে তারা কার্যালয়ের সামনে রাখা ইউনিয়নের নেতাদের ১১টি মোটরসাইকেল ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেয় এবং আমার কারটি আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়।”

এ ঘটনায় তিনি সংগঠনের ১১ জন নেতা আহত হন, যারা স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে জানান তিনি।

এর শ্রমিকরা ধাওয়া করলে তাদের সঙ্গে হামলাকারীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইট-পাটকেল ছোড়ার ঘটনা চলতে থাকলে রাত ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত রংপুর-বগুড়া মহাসড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ থাকে।

তবে হামলার অভিযোগ অস্বীকার করে রংপুর জেলা মোটর মালিক সমিতির সভাপতি আবু আজগার আহমেদ পিন্টু বলেন, “ঘটনার সঙ্গে মালিক সমিতি জড়িত নয়। শ্রমিকদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের জের ধরে এঘটনা ঘটেছে।”

রংপুর সদর সার্কেলের এএসপি হুমায়ুন কবীর বলেন, “অগ্নিনির্বাপক দলের সহযোগিতায় পুলিশ যানবাহনের আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এসময় আব্দুস সালাম ও শংকর রায় নামে দুই পুলিশ কনস্টেবল আহত হন। তাদেরকে পুলিশ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।”

Print Friendly

উপদেষ্টা সম্পাদক : আরিফ নেওয়াজ ফরাজী বাদল

সম্পাদক : হাবিবুল্লাহ মিজান

মোবাইল : ০১৫৩৪৬০৪৪৭৬, ই-মেইল : mizandeshi@gmail.com