এই মুহুর্তে পাওয়া..
Home / জেলার অপরাধ / খুলনা-বিভাগ / যশোরে শহীদ মিনারে বোমা বিস্ফোরণ, পুলিশের গুলি

যশোরে শহীদ মিনারে বোমা বিস্ফোরণ, পুলিশের গুলি

অল ক্রাইমস টিভিঃ যশোর এমএম কলেজ কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একুশের প্রথম প্রহরে ফুল দেওয়ার সময় বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। পরিস্থিতি শান্ত করতে পুলিশ ৫/৬ রাউন্ড ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। এ সময় শহীদ মিনারে শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যাওয়া হাজারো জনতা আতঙ্কিত হয়ে ছুটাছুটি শুরু করে।
এসময় শহীদ বেদিতে ফুল দিতে মিনার চত্ত্বরে উপস্থিত ছিলেন এমপি কাজী নাবিল আহমদ, জেলা প্রশাসক ড. হুমায়ুন কবীর, পুলিশ সুপার আনিসুর রহমানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা। শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য অপেক্ষা করছিলেন জেলা আওয়ামী লীগ, বিএনপিসহ বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীর ভাষ্যমতে, একুশের প্রথম প্রহরে ফুল দিতে যশোর সরকারি এমএম কলেজস্থ কেন্দ্র্রীয় শহীদ মিনারে রাত ১১টা থেকে বিভিন্ন সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত হতে থাকেন। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন চাকলাদার ও এমপি কাজী নাবিল আহমদ গ্রুপও পৃথকভাবে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য জড়ো হন। তারা আলাদাভাবে স্লোগান দিয়ে শহীদ মিনারের কাছাকাছি অবস্থান করেন।

এক পর্যায়ে রাত ১২ টা ১ মিনিটে ফুল দেওয়ার জন্য এমপি কাজী নাবিল আহমেদের নাম মাইকে ঘোষণা করা হয়। এরপর পর্যায়ক্রমে জেলা প্রশাসক, পরে পুলিশ সুপার ও এমএম কলেজের অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানকে শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য ডাকা হয়। এরই মধ্যে শহীদ মিনারের পাশে বোমা বিস্ফোরণ ঘটে। পরে পুলিশ ফাঁকা গুলি ছুঁড়তে থাকে। তখন শ্রদ্ধা জানাতে আসা হাজারো জনতা নিরাপদ আশ্রয়ের খোঁজে দৌড়াতে থাকেন। পণ্ড হয়ে যায় শ্রদ্ধা জানানো অনুষ্ঠান।

যশোর সংবাদপত্র পরিষদের সভাপতি একরাম-উদ-দ্দৌল্লা বলেন, তিনি ঘটনার সময় উপস্থিত ছিলেন। যশোরের সাংবাদিকদের নিয়ে তিনি শ্রদ্ধা নিবেদন করতে যান। কিন্তু বোমা ও গুলি হওয়ার পর সাংবাদিকদের কোনো সংগঠন ও পত্রিকার পক্ষে শ্রদ্ধা জানাতে পারেনি। এ নিন্দনীয় ঘটনার সাথে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার দাবি জানান তিনি।

এ বিষয়ে যশোর পুলিশের মুখপাত্র এএসপি মীর শাফিন মাহমুদ বলেন, বোমা বিস্ফোরণ হলে পুলিশ পরিস্থিতি শান্ত করতে ফাঁকা গুলি ছোঁড়ে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়েছে কিনা এবং কয় রাউন্ড গুলি ছোঁড়া হয়েছে সেটা ‍তিনি জানাতে পারেননি।

তিনি আরও বলেন, কারা এর সাথে জড়িত সেটা তদন্তের পর জানা যাবে।

Print Friendly

উপদেষ্টা সম্পাদক : আরিফ নেওয়াজ ফরাজী বাদল

সম্পাদক : হাবিবুল্লাহ মিজান

মোবাইল : ০১৫৩৪৬০৪৪৭৬, ই-মেইল : mizandeshi@gmail.com